শুরু হয়ে যাচ্ছে পাক-ভারত যুদ্ধ, দিনক্ষণ ঘোষণা!

উত্তেজনা উস্কে দেয়া জম্মু-কাশ্মির বিভক্তি ইস্যুতে চলতি বছরের নভেম্বর বা ডিসেম্বরের মধ্যেই পাক-ভারত যুদ্ধ শুরু হয়ে যেতে পারে।

গতকাল বুধবার রাওয়ালপিন্ডিতে এক অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমদ এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

সম্ভাব্য এই যুদ্ধকে সামনে রেখে পাকিস্তানের সকল সামরিক-বেসামরিক নাগরিকদের সব মতভেদ ভুলে এক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘এখন বিভেদের সময় নয়। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে প্রায় ১০টির মতো যুদ্ধ বা যুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল। আগামী নভেম্বর বা ডিসেম্বরের সময়টি খুব গুরুত্বপূর্ণ। যুদ্ধ বাঁধলে ভারততে কঠিন জবাব দিতে প্রস্তুত থাকতে হবে।’

শেখ রশিদ মনে করেন, ভারত অধিকৃত কাশ্মিরে চূড়ান্ত স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় এসে গেছে। এই এটাই হবে ভারতের সাথে পাকিস্তানের শেষ যুদ্ধ।

তিনি বলেন, ‘কাশ্মিরিদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলতে হবে। ভারতের ২৫ কোটি মুসলমান পাকিস্তানের দিকে তাকিয়ে আছে। আমাদের পিছু হটার সুযোগ নেই। তাহলে ইতিহাস আমাদের ক্ষমা করবে না।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করে শেখ রশিদ আরও বলেন, ‘মোদীর কারণে কাশ্মির এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। কাশ্মিরের জনগণকে নিয়ে পাকিস্তান সরব থাকলেও আমার প্রশ্ন- এ নিয়ে মুসলিম বিশ্ব এখনও নীরব কেন? জিন্নাহ অনেক আগেই ভারতের মুসলিমবিরোধী মানোভাব অনুধাবন করেছিলেন। যারা এখনও ভারতের সাথে সংলাপ সম্ভব মনে করেন, আমি তাদেরকে নির্বোধ বলবো।’

আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ভাষণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হবে উল্লেখ করে দেশটির রেলমন্ত্রী বলেন, ‘পাকিস্তান ভাগ্যবান যে, দেশটির পাশে চীনের মতো এক শক্তিশালী ও বিশ্বস্ত বন্ধু রয়েছে।

SHARE